মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সময় : রাত ১১:২৩

অজ্ঞাত ২ মৃতদেহের পরিচয় উদ্ঘাটন ও ক্লুলেস হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ৩ জন আটক


প্রকাশের সময় :৩ এপ্রিল, ২০২১ ১২:০৯ : পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্ক ও নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের খংসারদি সেতুর নিচে অজ্ঞাত ২ মৃতদেহের পরিচয় উদ্ঘাটন ও ক্লুলেস হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১। এসময় প্রতারণা ও হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত  প্রাইভেটকার, ২ টি গামছা, ৫ টি মোবাইল ফোন,২ টি ল্যাপটপ, ১ টি ডেক্সটপ, নগদ ১১,২৩০ টাকা, বিভিন্ন ধরনের ভিজিটিং কার্ড, ১৫ টি বায়োডাটা, ফাকা ষ্ট্যাম্প,বিভিন্ন ধরনের সিল এবং অফিস আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ডিএমপির পল্লবীর থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডে জড়িতদের আটক করা হয় বলে র‍্যাব সুত্রে জানা গেছে।

আটককৃত আসামীরা হলেন, ঝিনাইদহ জেলার কোটচাঁদপুর থানাধীন গালিমপুর এলাকার মোঃ রুস্তম আলীর ছেলে মাসুদুর রহমান (৩৭) ও একই থানাধীন জালালপুর এলাকার মোঃ আব্দুল হাকিমের ছেলে মোঃ আব্দুল হালিম (৩৬) এবং যশোর জেলার চৌগাছা সদর এলাকার মোঃ আনোয়ার হোসেনের ছেলে মোঃ লালটু মিয়া (৪১)।

পরিচয় সনাক্ত করা নিহত কবির হাসান (২২) রংপুর জেলার মিঠাপুকুর থানাধীন নয়াপাড়া গ্রামের জাবিউল ইসলা্মের ছেলে বলে র‍্যাব সুত্রে নিশ্চিত করা হয়েছে। অপর নিহত মোঃ সাগর হোসেন (২৫) জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি থানাধীন নন্দইল হাটখোলা এলাকার আব্দুর রশিদের ছেলে।

র‍্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার),সহকারী পুলিশ সুপার মুশফিকুর রহমান তুষার জানান, গত ৩০ মার্চ গাজীপুরের শ্রীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কের দক্ষিণ-পূর্বদিকে ৪নং গেটের পাশে একটি অজ্ঞাত যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায়  শ্রীপুর থানায় একটি মামলা হয় । পরে নিহত যুবকের পরিচয় সনাক্ত করা হয় র‍্যাবে নব সংযোজিত Onsite Identification and Verification System (OIVS) এর মা্ধ্যমে এবং এই চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডের ছায়া তদন্ত শুরু ও গোয়েন্দা নজরদারী বাড়ানো হয়। এরই ধারাবাহিকায় গতকাল ১ এপ্রিল র‍্যাব-১ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল ডিএমপির পল্লবীর থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তিন জনকে আটক করে।

তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কবির হোসেন হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ ও বিভিন্ন তথ্য যাচাই বাছাই করে আরো জানা যায়, গত ২৫ মার্চ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের খংসারদি সেতুর নিচে অজ্ঞাত এক যুবকের মৃতদেহ পাওয়া যায়। সেই  হত্যাকান্ডের সাথে এই চক্রটি জড়িত বলে স্বীকার করে। পরে র‍্যাব  অজ্ঞাত যুবকের পরিচয় উদঘাটন করে। এই চক্রটি  মানবপাচার, চাকুরী, প্রতারণা ও সুদের ব্যবসাসহ নানা রকম অবৈধ কার্যক্রমের সাথে জড়িত।

গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানা এই র‍্যাব কর্মকর্তা ।

সিএস পি/কেসিবি/১১ঃ৩৭পিএম

ট্যাগ :