রোববার, ৪ এপ্রিল ২০২১, ২১শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সময় : রাত ১২:৩১

শিরোনাম

এমপি নদভীর প্রচেষ্ঠায় চরম্বায় আইল এখন পূর্ণাঙ্গ রা


প্রকাশের সময় :২৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ১০:৩৫ : অপরাহ্ণ

 

রায়হান সিকদার,লোহাগাড়া প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চরম্বা ইউনিয়নের নোয়ারবিলা সিকদার পাড়া মগবিটা হইতে মাইজবিলা সংযোগ সড়কটি এখন দৃশ্যমান উন্নয়নে রুপান্তরিত হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে আইলের উপর দিয়ে চলাচল করত ৩/৪ শত লোকজন। অতি কষ্টে যাতায়াত করত এ অঞ্চলের লোকজন।

সরেজমিনে পরিদর্শন করে জানা যায়, উপজেলার চরম্বা ইউনিয়নের নোয়ারবিলা সিকদার পাড়া মগবিটা হইতে পুর্ব মাইজবিলা এলাকার মানুষ অতি কষ্টে আইল দিয়ে চলাচল করত। বর্ষাকালে ওই এলাকার লোকজন যাতায়াতে কষ্টের সীমা থাকেনা।

তারই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম-১৫ সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার সংসদ সদস্য,উন্নয়নের সফল কান্ডারী প্রফেসর ড.আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী এমপির ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় উপজেলার চরম্বা পুর্ব মাইজবিলা এলাকায় ইউপির ৭,৮,৯নং সংরক্ষিত আসনের মহিলা মেম্বার মমতাজ বেগমের বরাদ্দকৃত হতে ৪০দিনের কর্মসূচির আওতায় (২০২০-২০২১) অর্থ বছরের প্রথম পর্যায়ের কাজ মাটি দ্বারা আইলকে পূর্ণাঙ্গ একটি রাস্তা হিসেবে তৈরি করে তাক লাগিয়ে দেন । দৃশ্যমান সড়টি উপজেলার সর্বমহলে আলোচনায় এসেছে।এছাড়াও সড়কটিতে ননায়েস প্রকল্পের একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হয়।

স্থনীয় কৃষক সেলিম উদ্দিন বলেন, দীর্ঘদিন তারা আইলের উপর দিয়ে চলাচল করে ক্ষেত খামারে গিয়েছে। জনপ্রতিনিধিদের আন্তরিকতায় আইলটি এখন সড়ক। আগে তাদের এলাকার লোকজন ও সন্তানেরা স্কুৃলে কিংবা যাতায়াতের সময় অতি কষ্ট হতো। এখন চার চাকার গাড়ি চলাচল করতেও কষ্ট হবে না।

এলাকার বাসিন্দা বানু আকতার জানান, এক সময় আমাদের এলাকার মানুষ ও সন্তানেরা আইল দিয়ে যাতায়াত করত অতি কষ্টের মাধ্যমে। আইলটি পুর্নাঙ্গ সড়কে রুপান্তরিত হওয়ায় আমরা এলাকাবাসী অনেক বেশী খুশী ও আনন্দিত।

চরম্বা ইউপির সাবেক মেম্বার মোহাম্মদ কালু জানান,বিগত দিনে এলাকার মানুষ আমাকে মেম্বার পদে নির্বাচিত করেন। পরবর্তীতে আমার স্ত্রী মমতাজ বেগম ৭,৮,৯নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার পদে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই এলাকার নারীদের কল্যাণে এবং এলাকার রাস্তাঘাট ও কালভার্টসহ বিভিন্ন ধরণের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। পুর্ব মাইজবিলা এলাকার মানুষ একসময় চলাচল করতে চরম ভোগান্তির শিকার হতে হতো। তারা আইল দিয়ে চলাচল করত। ৪০ দিনের হত দরিদ্র কর্মসূচির আওতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মাননীয় এমপি মহোদয়ের আন্তরিক প্রচেষ্ঠায়, মাননীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার শফিকুর রহমান, ৭,৮,৯নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার আমার সহধর্মিণী মমতাজ বেগমের মাধ্যমে সড়কটি দৃশ্যমান উন্নয়ন করা হয়েছে। পাহাড়ি জনপদ হলেও এটা জনবসতিপূর্ণ এলাকা। এলাকার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ করতে পেরে অনেক বেশী ভাল লাগছে।

চরম্বা ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার শফিকুর রহমান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মাননীয় এমপি মহোদয়ের প্রচেষ্ঠায় ৪০ দিনের হত দরিদ্র কর্মসূচি ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চলে মাটি দ্বারা সংস্কার ও রাস্তা তৈরির কাজ শেষ হয়েছে।

আইল এখন পুর্ণাঙ্গ সড়কে পরিণত হওয়ায় স্হানীয় এলাকাবাসী চট্টগ্রাম-১৫ সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার মাননীয় সাংসদ প্রফেসর ড.আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী এমপি ও বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য নারীনেত্রী রিজিয়া রেজা চৌধুরীকে অনেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

ট্যাগ :