সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সময় : রাত ১২:৫৪

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে পতিতাবৃত্তি;প্রতারকচক্রের ২ সদস্য আটক


প্রকাশের সময় :৪ মে, ২০২১ ৬:১৮ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ১ বৎসর যাবৎ জোর পূর্বক আটকে রেখে পতিতাবৃত্তি করানোর দায়ে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সদস্য মোঃ নুরুল আলম (৬০) ও মোঃ আমির (৪৫) নামে ২ জন কে আটক করেছে র‌্যাব-৭, পতেঙ্গা, চট্টগ্রাম।

গতকাল ০৩ মে  সোমবার বিকাল ৩ঃ০০ টায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয় বলে জানান র‍্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক(মিডিয়া) মোঃ নুরুল আবছার।

আটককৃত আসামীরা হলেন, মোঃ নুরুল আলম চট্টগ্রাম জেলার আনোয়ারা থানাধীন পারকির চর (নানু মেম্বারের বাড়ী) এলাকার মৃত সাহাব মিয়ার ছেলে এবং মোঃ আমির চট্টগ্রাম মহানগরী বন্দর থানাধীন মধ্যম আলী রোড, আলী মাঝির পাড়া, সাহাবুদ্দিন জমিদারের বাড়ী এলাকার আমজাদ আলী খাঁর ছেলে।

র‌্যাব-৭, এর সহকারী পরিচালক, পতেঙ্গা বিশেষ ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি সোহেল মাহমুদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি যে চট্টগ্রাম মহানগরীর বন্দর থানাধীন দক্ষিন মধ্যম আলী রোড, আলী মাঝির পাড়া ,ফারুক কলোনীর মোজ্জাম্মেল এর বাসায় অভিযান পরিচালনা করা হয় । এসময়  র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে প্রতারক চক্রটি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে প্রতারক চক্রের দুই জনকে আটক করা হয় এবং ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিম ৩ মহিলাকে উদ্ধার করা হয় । পরে আসামীরা চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভিকটিমদের পতিতাবৃত্তির করানোর কথা স্বীকার করে।

তিনি আরও জানান, এই সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্র ব্রাহ্মনবাড়িয়া ও ভোলার ৩ জন মহিলাকে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘ ১ বছর চট্টগ্রাম মহানগরীর বন্দর থানাধীন দক্ষিন মধ্যম আলী রোড, আলী মাঝির পাড়া ,ফারুক কলোনীর মোজ্জাম্মেল এর বাসায় আটকে রেখে জোর পূর্বক ভিকটিমদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাদের জীবন নাশসহ পরিবারের বিরাট ক্ষতি করবে মর্মে হুমকি দেখিয়ে তাদেরকে পতিতাবৃত্তি কাজ করতে বাধ্য করে। উক্ত ঘটনায় প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম মহানগরীর বন্দর থানায় ২০১২ সালের মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সিএস পি/কেসিবি/৬ঃ১২পিএম

ট্যাগ :