সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সময় : রাত ৪:১০

ঝটিকা সফরই সুজনের অস্ত্র, প্রথম দিনেই পিসি রোড


প্রকাশের সময় :৬ আগস্ট, ২০২০ ১১:২৪ : অপরাহ্ণ
সিএসপি নিউজ :  চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) প্রশাসকের দায়িত্ব গ্রহণের প্রথম দিনই আগ্রাবাদ পোর্ট কানেকটিং রোডে (পিসি রোড) ছুঁটে গিয়েছেন নগরের বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ খোরশেদ আলম সুজন। এসময় তিনি ৫ দিন সময় বেঁধে দিয়ে পোর্ট কানেকটিং রোডের সব গর্ত  ভরাট করে যান চলাচলের উপযোগী করার ও আগামী নভেম্বরের মধ্যে কাজ শেষ করার নির্দেশনা দিয়েছেন।

চসিকের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায় নাগরিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে
প্রতিদিনই এইরকম ঝটিকা সফরে বের হবেন সদ্য নিয়োগ পাওয়া এই চসিক প্রশাসক। বিষয়টি ইতিমধ্যে খোরশেদ আলম সুজন নিজেই চসিকের কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন।
এদিকে বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) পোর্ট কানেকটিং সড়কের সাগরিকা থেকে নয়াবাজার মোড় পর্যন্ত পরিদর্শনকালে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার ও প্রকৌশলীদের উদ্দেশ্যে কঠোর হুঁশিয়ারি  দিয়ে তিনি বলেন, আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব আমি সর্বোচ্চ সততার মাধ্যমে পালন করতে চাই। আপনারাও আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব সততার সঙ্গে পালন করবেন।
এসময় নগরের এই সড়কের গুরুত্ব তুলে ধরে তিনি বলেন সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কিন্তু দীর্ঘসূত্রতায় নিমজ্জিত হয়ে বছরের পর বছর এ সড়কের উন্নয়নকাজ সম্পন্ন হয়নি। যা অত্যন্ত দুঃখজনক। এ নিয়ে স্থানীয় এলাকাবাসীর মনে ক্ষোভ সৃষ্টি ও চট্টগ্রামের সৌন্দর্য ও সুনামের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে
এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে চসিক প্রশাসকের দায়িত্ব গ্রহণের সময় দুর্নীতিবাজদের প্রতি কঠোর হুশিয়ারি দিয়েছিলেন  নগর আওয়ামীলীগের ত্যাগী এই নেতা। ওই সময়ে তিনি জানান,  জনগণের দুর্ভোগ সৃষ্টিকারী ও দুর্নীবাজদের ছাড় দেওয়া হবে না।
চসিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায় প্রথম দিনে দায়িত্ব গ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা শেষে চসিকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে একটি বৈঠক করেন সদ্য নিয়োগ পাওয়া চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন। সেখানে তিনি নাগরিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে বেশ কিছু দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। পরবর্তীতে চসিকের প্রতিটি বিভাগের সাথে আলাদা আলাদা বৈঠকের কথা রয়েছে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সামশুদ্দোহা বলেন, ‘তিনি (প্রশাসক) আজকে আমাদের নিয়ে প্রাথমিক একটি বৈঠক করেছেন। সেখানে তিনি বলেছেন ১৮০ দিন সময়ের মধ্যে আমি একটা পরিবর্তন রেখে যেতে চাই। এই সময়ে নাগরিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করণের উপর জোর আরোপ করেছেন।’ এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “প্রথমদিন উনি যেভাবে বলেছেন  আমরা উৎসাহিত হয়েছি। আশা করছি এই সময়ে ভালো কিছু করতে পারবো।