মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সময় : দুপুর ২:০৩

টেকনাফে র‍্যাবের অভিযানে শিশুকন্যাসহ ১ অপহৃত উদ্ধার ও ১ অপহরণকারী আটক


প্রকাশের সময় :৪ এপ্রিল, ২০২১ ৮:১৬ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন গুচ্ছগ্রাম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অপহৃত ভিকটিম আমিনা খাতুন (২২) ও তার শিশুকন্যা আসমা বিবি (১)কে উদ্ধারসহ মোঃ রবিউল আলম (২৬) নামে ১ অপহরণকারীকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫।

গতকাল শনিবার ৩ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭ঃ০০ টায় এ অভিযান পরিচালিত হয়। আটককৃত আসামী মোঃ রবিউল আলম কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন গয়ালমারা এলাকার মোঃ সিদ্দিকের ছেলে এবং অপহৃত আমিনা খাতুন কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন শফিউল্লাহকাটা রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১৬ এর মোঃ ইসলামের মেয়ে।

র‍্যাব সুত্রে জানা যায় ,গত ২৯ মার্চ আমিনা খাতুন (২২) তার শিশুকন্যা আসমা বিবি (১)কে ডাক্তার দেখানোর জন্য উখিয়া থানাধীন গয়ালমারা এমএসএফ এনজিও হাসপাতালে যাওয়ার পথে পালংখালী ইউনিয়নের শফিউল্লাহকাটা সিআইসি অফিসের কাছাকাছি কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়ক থেকে রবিউল আলম এবং পলাতক মোঃ হোছনসহ আরো অজ্ঞাত ২-৩ জন অপহরণকারী তাকে জোরপূর্বক একটি সিএনজিতে উঠিয়ে একটি অজ্ঞাতস্থানে বন্ধ ঘরে আটকে রাখে এবং মারধর করে। একপর্যায়ে তার কাছ থেকে তার পরিবারের মোবাইল নম্বর নিয়ে এক লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে এবং টাকা দিতে ব্যর্থ হলে মেরে ফেলবে বলে হুমকী দেয়।

র‌্যাব-১৫, সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, অপহৃতের বাবার করা অভিযোগের ভিত্তিতে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন বাহারছড়া ইউনিয়নের গুচ্ছগ্রাম এলাকায় মোঃ রবিউল আলম এর বসত বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অপহৃত আমিনা খাতুন (২২)কে উদ্ধার করে এবং র‌্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে অপহরণকারীরা পালিয়ে যাওয়ার সময় এক অপহরণকারীকে আটক করে। এসময় মোঃ হোছনসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩ জন আসামী দৌড়ে পালিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামী স্বীকার করে যে, সে দীর্ঘদিন যাবৎ পলাতক আসামীদের সহায়তায় বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মানুষকে কৌশলে অপহরণ করে তাদের বাড়িতে আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায় করে আসছে। আসামীকে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। পলাতক অপহরণকারীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

সিএস পি/কেসিবি/৭ঃ৫৪পিএম

ট্যাগ :