বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০ ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সময় : ভোর ৫:০৪

বয়স্ক ভাতার কার্ড পাননি ৮০বছরের বৃদ্ধ নুর আহমদ


প্রকাশের সময় :২০ নভেম্বর, ২০২০ ৭:৪৯ : অপরাহ্ণ

 

রায়হান সিকদার,লোহাগাড়াঃ

বয়স ৮০ বছর পার হলেও চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলা চুনতি ইউনিয়নের হতদরিদ্র নুর আহমদের ভাগ্যে আজও জোটেনি বয়স্ক ভাতার কার্ড। এমনকি কেউ তাকে দেয়নি ভিজিডি কার্ডও। যার ফলে মানবেতর জীবনযাপন করছেন তিনি।

জানা গেছে, উপজেলার চুনতি ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ফারাঙ্গা মনদুলাচর এলাকার বাসিন্দা নুর আহমদ । তার ভোটার আইডি কার্ড অনুযায়ী তার বয়স ৮০ বছর। বর্তমানে বয়সের ভারে নুয়ে পড়েছেন।তার বাড়ী পাহাড়ের উপরে।
সংসারে ৭ ছেলে ২ মেয়ে। ১ মেয়ের বিয়ে দিছে। আরেকজনের এখনো বিয়ে হয়নি। তার স্ত্রী বিগত ৬ বছর পুর্বে মারা গেছে। সন্তানেরা তাদের সংসার নিয়ে ব্যস্ত। ৭ ছেলে সন্তানের মধ্যে ৩জন বিভিন্ন রোগব্যাধিতে আক্রান্ত।
স্ত্রী মারা যাওয়ার পর থেকে তার চলাফেরা করতে খুব কষ্ট হয়। শ্বাসকষ্ট ও ডায়াবেটিক সহ বিভিন্ন রোগে ভুগছেন বৃদ্ধ নুর আহমদ।

সামান্য বসতঘর থাকার জায়গা ছাড়া আর কোন সহায় সম্বল নেই । বৃদ্ধ নুর আহমদ কোনো কাজ করতে না পারায় অতি কষ্ঠে দিন যাপন করছেন। স্থানীয় জনপ্রতিনিধির কাছে কাকুতিমিনতি করেও মেলেনি বয়স্ক ভাতার কার্ড। ফলে অভাবের সঙ্গে পাল্টা দিয়ে অর্ধাহারে অনাহারে দিন কাটাচ্ছেন।

বৃদ্ধ নুর আহমদ দুঃখ করে বলেন, এলাকায় তার ১০/১৫ বছরের ছোটরা বয়স্কভাতা পায়। কিন্তু তিনি বয়স্ক ভাতা পান না। অতি কষ্টে দিনাতিপাত করছি। জটিল রোগসহ বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে দিন কাটাচ্ছি। শেষ বয়সে যদি বয়স্ক ভাতার কার্ড পেলে কিছু হলেও দুঃখ টা কেটে যাবে বলেও তিনি জানান।

স্হানীয় ইউপি সদস্য মুহাম্মদ জানে আলম প্রকাশ জানু মেম্বার জানান,বৃদ্ধ নুর আহমদ খুব বেশী অসহায়। তিনি শ্বাসকষ্ট ও ডায়াবেটিক রোগসহ বিভিন্ন ধরণের জটিল রোগে ভুগছেন। বিষয়টি তিনি চুনতি চেয়ারম্যান সাহেবের মাধ্যমে উপজেলা সমাজসেবা অফিসারকে অবহিত করে দ্রুত বয়স্ক ভাতার কার্ডের ব্যবস্হা করা হবে।

চুনতি ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন জনু কোম্পানী বলেন, নুর আহমদ বিষয়ে জানতাম না। শীঘ্রই তার নাম বয়স্ক ভাতার আওতায় আনা হবে।

লোহাগাড়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসার দেলোয়ার হোসেন জানান,৮০ বছরের বৃদ্ধ নুর আহমদ বয়স্ক ভাতার আওতায় পড়েননি আমার জানা ছিল না। কিন্তু বয়স্ক ভাতা পেতে আবেদন করলে আগামী অর্থ বছরে তার নাম তালিকায় অর্ন্তভুক্ত করা হবে।

বয়স্ক ভাতার কার্ডের আওতায় আনার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ অাহসান হাবীব জিতু ও উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মোঃ দেলোয়ার হোসেনের প্রতি সুদৃষ্টি কামনা করেছেন বৃদ্ধ নুর আহমদ।

ট্যাগ :