সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:৩৩ অপরাহ্ন

ভারতে গেলো ৭৮ টন ইলিশ

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে দুই হাজার ৮০ মেট্রিক টন ইলিশ রফতানির প্রথম চালানের ৭৮ টন ৮৪০ কেজি মাছ ভারতে গেছে। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায় এই মাছ বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে।

বেনাপোল স্থলবন্দর মৎস্য কোয়ারেন্টিন পরিদর্শক আসওয়াদুল ইসলাম বলেন, ‘ইলিশ মাছ রফতানি নিষিদ্ধ হলেও দুর্গাপূজা উপলক্ষে এবার দুই হাজার ৮০ মেট্রিক টন ইলিশ রফতানির অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এসব ইলিশ রফতানির অনুমতি পেয়েছে বাংলাদেশের ৫২টি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান। প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে ৪০ মেট্রিক টন ইলিশ রফতানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বুধবার ইলিশের প্রথম চালানে ৭৮ টন ৮৪০ কেজি ইলিশ ভারতে প্রবেশ করেছে। পর্যায়ক্রমে বাকি মাছ রফতানি হবে। আগামী ১০ অক্টোবরের মধ্যে এই ইলিশ মাছ রফতানির নির্দেশনা রয়েছে।’

বেনাপোলের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট নিলা এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি রুবাইত বলেন, ‘এবার প্রতি কেজি ইলিশের রফতানি মূল্য ১০ মার্কিন ডলার। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রতি কেজি ৮৫০ টাকা। ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশের কাস্টমস থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় ইলিশের এ চালান ছাড় করা হবে। ইলিশের রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান হলো খুলনার সাউদার্ন ফুড লিমিটেড, ঢাকার ইউনিয়ন ভেঞ্চার, যশোরের রহমান ইমপেক্স ও পাবনার সেভেন স্টার ফিস প্রসেসিং কোং নামের চারটি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান।’

দেশের চাহিদা বিবেচনায় ২০১২ সাল থেকে ভারতে ইলিশ রফতানি বন্ধ করে সরকার। তবে ইলিশের উৎপাদন কমে যাওয়ায় ২০১২ সালের পর ইলিশ রফতানি বন্ধ করে দেয় সরকার। গতবছরও দুর্গাপূজা উপলক্ষে এক হাজার ৪শ’ ৫০ মেট্রিক টন ইলিশ রফতানির অনুমোদন দিয়েছিল সরকার। এরপর থেকে আবারও বন্ধ থাকে ইলিশ রফতানি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুক পেইজ