শনিবার, ৩ এপ্রিল ২০২১, ২০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সময় : রাত ৮:৫৯

শিরোনাম

রাজধানীর কড়াইল বস্তির চাঞ্চল্যকর স্ত্রী ও শিশু সন্তান হত্যার প্রধান আসামী রুবেল আটক


প্রকাশের সময় :৩ এপ্রিল, ২০২১ ৮:৫৮ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
রাজধানীর বনানী থানাধীন কড়াইল বস্তি এলাকায় চাঞ্চল্যকর নিজ স্ত্রী ও শিশু সন্তান হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী রুবেল (৩০) র‌্যাব-১ এর বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ।

আজ শনিবার ৩ এপ্রিল বিকাল ৫ঃ৩০ মিনিটের সময় রাজধানীর তুরাগ থানাধীন কামারপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত আসামী মোঃ রুবেল (৩০) তাজুল ইসলামের ছেলে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়,আসামী রুবেল পেশায় রাজমিস্ত্রির । সে বিগত ৭ বছর পূর্বে হাসি খাতুনকে (২৪)কে বিয়ে করে রাজধানীর বনানী থানাধীন কড়াইল এলাকায় থাকত। তাদের একমাত্র ছেলে সন্তান নিরব (৫)। গত ৫ মাস আগে রুবেল স্ত্রী সন্তান নিয়ে কুমিল্লা জেলার ইলাসপুর এলাকায় তার গ্রামের বাড়িতে বসবাস শুরু করে। এসময় রুবেল তার স্ত্রী হাসিকে পারিবারিক কলহের জের ধরে প্রায়ই নির্মমভাবে শারীরিক নির্যাতন ও অত্যাচার করত। পরে হাসি শারীরিক নির্যাতন ও অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে তাদের একমাত্র সন্তান নিরব (৫)’কে নিয়ে তার বাবার বাড়ি বনানী থানাধীন কড়াইল বৌবাজার এলাকায় চলে আসে। পরে রুবেল গত ২২ মার্চ তার স্ত্রীকে নিজ বাসায় নেওয়ার জন্য কড়াইল এলাকায় ভিকটিমের বাবার বাড়িতে আসে। কিন্তু ভিকটিম তার স্বামীর সাথে যেতে না চাইলে ওইদিন রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে ভিকটিম হাসি খাতুনকে গলা টিপে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে কড়াইল বৌবাজারস্থ ঝিলের পাড় এলাকায় লাশ ফেলে রাখে এবং একমাত্র সন্তান নিরব কেও গলা টিপে হত্যা করে লাশ তার মায়ের পাশে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

র‍্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার),সহকারী পুলিশ সুপার মুশফিকুর রহমান তুষার জানান, রাজধানীর বনানী থানাধীন কড়াইল বৌবাজারস্থ ঝিলপাড় এলাকায় পারিবারিক কলহের জের ধরে হাসি খাতুন  ও তার সন্তান নিরবকে ভিকটিমের স্বামী রুবেল নির্মমভাবে হত্যা করে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে বনানী থানায় একটি হত্যা মামলা করে। এই নির্মম হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে এবং বিভিন্ন টেলিভিশন ও সংবাদ মাধ্যমে গুরুত্বের সাথে প্রচারিত হয়। এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় র‌্যাব-১ হত্যাকারীকে খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতে দ্রুততম সময়ে ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

তিনি জানান, এরই ধারাবাহিকতায় আজকে  গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজধানীর তুরাগ থানাধীন কামারপাড়া কাঁচামালের আড়ৎ এর সামনে রাস্তার উপর অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডের প্রধান আসামীকে আটক করা হয় । প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকান্ডের সাথে সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান এই র‍্যাব কর্মকর্তা।

সিএস পি/কেসিবি/৮ঃ৫২পিএম

ট্যাগ :