সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সময় : সন্ধ্যা ৭:৩৮

শিরোনাম

লকডাউনে সরকারী নির্দেশনা না মানায় ১৯ মামলায় ১৭,৫৫০ টাকা জরিমানা


প্রকাশের সময় :৬ এপ্রিল, ২০২১ ৬:৫৪ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
সম্প্রতি কোভিড- ১৯ পরিস্থিতির অবনতিতে দেশব্যাপি  ১ সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। সেইসাথে লকডাউন বাস্তবায়নে ১৮ টি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে । এদিকে নির্দেশনা বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন। লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে আজকে নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযানে নামে জেলা প্রশাসনের ৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।  এসময় সরকারী নির্দেশনা অমান্য করায় ১৯ মামলায় ১৭,৫৫০ টাকা অর্থদণ্ড এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৫,০০০ মাস্ক বিতরণ করা হয়।

আজ মঙ্গলবার ৬ এপ্রিল বেলা ১২ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসন চট্টগ্রামের ছয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নগরীর ছয়টি স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব নাজমা বিনতে আমিন বায়েজিদ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কালে ৫ টি মামলা দায়ের করে ৫,৬৫০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এছাড়াও সাধারণ মানুষের মাঝে জেলা প্রশাসন, চট্টগ্রামের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মাসুমা জান্নাত নগরীর খুলশী ও মুরাদনগর এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন । এসময় ৩টি মামলায় ৭০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং সচেতনতার লক্ষ্যে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আশরাফুল আলম নগরীর অক্সিজেন মোড় এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে জনসাধারণকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে নির্দেশনা প্রদান করেন এবং সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন ।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত নগরীর এ কে খান মোড় এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ১০ টি মামলা দায়ের করে মোট ১০,৭০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষে মাস্ক বিতরণ করেন ।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত জানান, জেলা প্রশাসক এবং বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ মমিনুর রহমান স্যারের নির্দেশে আজকে নগরীর এ কে খান মোড় এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কালে দেখা যায় স্বাস্থ্য বিধি লংঘন করে এবং সরকারি নির্দেশ অমান্য করে রেস্টুরেন্টে বসিয়ে খাওয়া খাচ্ছে লোকজন এছাড়া বেশ কয়েকজন মাস্ক বিহীন ঘুরাফিরা করছে । এর প্রেক্ষিতে রেস্টুরেন্টে বসিয়ে খাওয়ানোয় ২টি রেস্টুরেন্ট এবং ৮ জন ব্যাক্তিকে মাস্ক না পরায় ১০ টি মামলায় ১০,৭০০ টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়। এসময় সবাইকে সতর্ক করা হয় এবং সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোনিয়া হক নগরীর কর্ণফুলী এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এ সময় সাধারণ মানুষ এবং গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে নির্দেশনা প্রদান করেন এবং জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুছাইন মুহাম্মদ আগ্রাবাদ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এসময় ১ টি মামলায় ৫০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং মাস্ক বিতরণ করেন।

সিএস পি/কেসিবি/৬ঃ৪৫পিএম

ট্যাগ :