রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, সময় : বিকাল ৫:৪০

লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে জেলা প্রশাসন; নগরীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৪৬,৮০০ টাকা জরিমানা


প্রকাশের সময় :৮ এপ্রিল, ২০২১ ৬:৩৮ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
লকডাউন বাস্তবায়ন ও সরকারি নির্দেশনা প্রতিপালনে মাঠে মেনেছে জেলা প্রশাসন। নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসাবে আজকে নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অভিযান চালায় জেলা প্রশাসনের ৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এসময় ৬ টি অভিযানে ৪৬,৮০০ টাকা অর্থদণ্ড এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৪,৫০০ মাস্ক বিতরণ করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার ৮ এপ্রিল সকাল ১১ঃ৩০ থেকে ৪ঃ০০ টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসন চট্টগ্রামের ছয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নগরীর বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিবেদিতা চাকমা নগরীর কোতোয়ালি ও সদরঘাট এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কালে ৮ টি মামলা দায়ের করে ৩,২০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়াও সাধারণ মানুষের মাঝে জেলা প্রশাসন,চট্টগ্রামের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ইনামুল হাছান নগরীর ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে জনসাধারণকে দিক নির্দেশনা প্রদান করেন এবং সচেতনতার লক্ষ্যে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আশরাফুল আলম নগরীর পাহাড়তলী এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে নির্দেশনা প্রদান করার সময় ১ টি মামলায় ১০০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন ।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী নগরীর কোর্ট বিল্ডিং, ফিরিঙ্গি বাজার, টেরি বাজার এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এসময় ১০ টি মামলা দায়ের করে মোট ৯,৬০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ নগরীর চকবাজার, জিইসি এবং ওয়াসা এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ জানান, আজকে নগরীর চকবাজার, জিইসি,ওয়াসা মোর এলাকায় অভিযান চালানো হয়।অভিযানে গিয়ে দেখা যায় ওয়াসা মোড় সংলগ্ন কুটুম্ববাড়ী রেস্তোরায় প্রায় ২৫ জনকে বসিয়ে খাবার পরিবেশন করতে দেখা যায়। কোভিড-১৯ মহামারীর এ পর্যায়ে সরকারি নির্দেশনা না মানায় কুটুম্ব বাড়ী রেস্তোরাকে ৩০,০০০ টাকা জরিমানা করা হয় এবং সতর্ক করা হয়।
তিনি আরও জানান, এছাড়া চকবাজার এলাকায় আরএফএল এর শোরুম খোলা রাখায় ১,০০০ টাকা  এবং একটি খাবার হোটেলকে ২,০০০ জরিমানা করা হয় এবং জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোঃ জিল্লুর রহমান পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে এবং মাস্ক বিতরণ করেন।

সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান স্টাফ অফিসার টু ডিসি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ওমর ফারুক।

সিএস পি/কেসিবি/৬ঃ৩৪পিএম

ট্যাগ :